Breaking News
Home / সকল খবর / লেডি হিটলার সুচিকে আন্তর্জাতিক আদালতে দাঁড় করানো হবে
loading...
লেডি হিটলার সুচিকে আন্তর্জাতিক আদালতে দাঁড় করানো হবে
লেডি হিটলার সুচিকে আন্তর্জাতিক আদালতে দাঁড় করানো হবে

লেডি হিটলার সুচিকে আন্তর্জাতিক আদালতে দাঁড় করানো হবে

মিয়ানমার, কাশ্মির, সিরিয়া, ইরাকসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে মুসলিম নির্যাতন চলছে। সম্প্রতি মিয়ানমারে মুসলমান রোহিঙ্গাদের ওপর যে গণহত্যা চলছে তা মানব সভ্যতা বিবর্জিত। মানবজাতি যখন ধ্বংসের দ্বার প্রান্তে এসে পৌঁছে ঠিক তখন এ ধরনের ধ্বংসলীলা চলে পৃথিবীতে। কোন সভ্যজাতি এ ধরনের গণহত্যা চালাতে পারে না। বাংলাদেশে কোন সংখ্যালঘুর ওপর হামলা হলে সারা বিশ্ব প্রতিবাদে মুখর হয়ে ওঠে। কিন্তু মিয়ানমারে দুনিয়া কাঁপানে হামলা হলেও এর কোনো কঠোর প্রতিবাদ হয়নি।শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বাংলাদেশ আওয়ামী ওলামা লীগসহ সমমনা ১৩টি ইসলামিক সংগঠনের মানববন্ধনে মিয়ানমারের মুসলিম গণহত্যার প্রতিবাদ জানানো হয়।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, স্বাধীন মুসলিম দেশ আরাকান ১৭৮৪ সালে তৎকালীন বার্মা দখল করে নেয়। আর ১৯৬২ সালে জেনারেল নে উইনের সামরিক জান্তা ক্ষমতা দখলের পর থেকে আরাকান রাজ্যের সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলমানদের ধর্মীয়, অর্থনৈতিক, সামরিক এবং রাজনৈতিকভাবে বিতাড়নের জন্য এক সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনা হাতে নেয়। মুসলিম বিদ্বেষী বৌদ্ধ সূচির সামরিক সরকার আরাকানের মুসলমানদের উপর বহুমুখী নির্যাতন, গণহত্যাসহ ও অমানবিক আচরণ করে আসছে। তাদের ধর্মে জীব গহত্যা মহা পাপ হলেও তারা নির্বিচারে মুসলিম রোহিঙ্গা নিধন করে যাচ্ছে।এটা কি ধরনের ধর্ম ? মিয়ানমারের লড়াইরত ‘কারেন’ বিদ্রোহীরা খ্রিস্টান হওয়ায় পশ্চিমাদের চাপে ২০১১ সালের ১২ই জানুয়ারি তারিখে যুদ্ধবিরতি চুক্তি স্বাক্ষর করতে বাধ্য হয়েছে। এর আগে গত ডিসেম্বরে উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় শান রাজ্যে লড়াইরত আরেক বিদ্রোহী গোষ্ঠী শান স্টেট আর্মি-সাউথের সাথে মিয়ানমারের সামরিক জান্তা যুদ্ধবিরতি চুক্তি স্বাক্ষর করেছে। অথচ নিরীহ রোহিঙ্গা মুসলমানরা নিরস্ত্র হওয়ার পরও তাদের উপর নির্মম গণহত্যা চালাচ্ছে মিয়ানমার সেনাবাহিনী।

loading...

বক্তারা আরও বলেন, জাতিসংঘের রেজুলেশন অনুযায়ী মিয়ানমারের কসাইদের উপর গণহত্যার পুরোপুরি দায়ভার বর্তায়। কারণ ১৯৪৮ সালের ৯ ডিসেম্বর জাতিসংঘের সাধারন পরিষদে গৃহীত গনহত্যা সংক্রান্ত রেজুলেশনে বলা আছে রেজুলেশনের ২৬০ (৩) ধারার অনুচ্ছেদ ২ এ নির্ধারন করা হয়েছে, শুধু হত্যা নয় আরো কিছু অপরাধ গনহত্যা হিসেবে গন্য হবে- পরিকল্পিত ভাবে একটি জাতি বা গোষ্ঠিকে নির্মুল করার জন্য তাদের সদস্যদেরকে হত্যা বা নিশ্চিহ্নকরা,একই উদ্দেশ্যে শারীরিক বা মানসিক ক্ষতিসাধন,একটি জাতি বা গোষ্ঠিকে নির্মুল করার উদ্দেশে এমন পরিবেশ সৃষ্টি করা যাতে তারা সম্পুর্ন বা আংশিক ভাবে নিশ্চিহ্ন হয়ে যায়,এমন পরিবেশ তৈরী করা যাতে একটি জাতি বা গোষ্ঠীর জীবনধারন কষ্টসাধ্য , সেই সংগে জন্মপ্রতিরোধ করে জীবনের চাকা থামিয়ে দেয়া হয়, একটি জাতি বা গোষ্ঠি শিশু সদস্যদের অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে তাদের জন্ম পরিচয় ও জাতিস্বত্বা মুছে ফেলা। সুতরাং মিয়ানমার লেডী কিলার সুচির ওপর এর দায়ভার বর্তায়।

এক্ষেত্রে জাতিসংঘের রেজুলেশন অনুযায়ী মিয়ানমারের সামরিক কসাইরা সব অপরাধের চাইতেও বেশী অপরাধ করছে। তাই বাংলাদেশ সরকারকে ওআইসি’র দেশগুলোকে নিয়ে মিয়ানমারের কসাইদের বিরূদ্ধে গণহত্যার দায়ে আর্šÍজাতিক আদালতে মামলা করা,অবরোধ আরোপ করা, ব্যবসা-বাণিজ্য বন্ধ করা, মিয়ানমার থেকে কূটনৈতিক প্রত্যাহারের উদ্যোগ নিতে হবে। ওআইসি’র পাশাপাশি জাতিসংঘ কর্তৃক মিয়ানমারে শান্তিরক্ষি মোতায়েন করা,মিয়ানমারের উপর অবরোধ আরোপ করা, মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী ও লেডি হিটলার সূচি’র উপর গণহত্যার অভিযোগ আনা,অনতিবিলম্বে ত্রাণ বরাদ্দ করা, রোহিঙ্গা মুসলমানদের নাগরিকত্ব প্রদানে বাধ্য করার উদ্যোগ নিতে হবে। শুধু মিয়ানমার নয় বরং কাশ্মির, সিরিয়া, লিবিয়াসহ সারাবিশ্বের মুসলমানদের উপর নির্যাতন বন্ধে প্রধানমন্ত্রীকে সক্রিয় ভূমিকা পালন করতে হবে। মানব বন্ধনে সুচির নোবেল পুরস্কার প্রত্যাহার করে আন্তর্জাতিক আদালতে বিচারের মাধ্যমে ফাসিঁ কার্যকরের দাবি জানানো হয়।

loading...

Check Also

আওয়ামীলীগের অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী বিএনপিতে যোগদান

আওয়ামীলীগের অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী বিএনপিতে যোগদান

আওয়ামীলীগের অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী বিএনপিতে যোগদান করেছেন। শক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে সদর উপজেলা বিএনপির কাযার্লয়ে …

Leave a Reply