ব্রেকিংঃ
Home / সকল খবর / রোহিঙ্গা মুসলিমদের দেখতে গিয়ে মহা ঝামেলায় পড়লেন ‘কফি আনান’
রোহিঙ্গা মুসলিমদের দেখতে গিয়ে মহা ঝামেলায় পড়লেন ‘কফি আনান’
রোহিঙ্গা মুসলিমদের দেখতে গিয়ে মহা ঝামেলায় পড়লেন ‘কফি আনান’

রোহিঙ্গা মুসলিমদের দেখতে গিয়ে মহা ঝামেলায় পড়লেন ‘কফি আনান’

বিডিমর্নিং ডেস্ক- রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠির ওপর মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর নির্বিচার হত্যা ও নির্যাতনের অবস্থা পর্যবেক্ষণে দেশটির রাখাইন প্রদেশে এসেছে কফি আনানের নেতৃত্বাধীন একটি দল। সেখানে রোহিঙ্গা মুসলিমদের অবস্থা দেখতে গিয়ে সেখানকার বৌদ্ধ কট্টরপন্থীদের বিক্ষোভের মুখে পড়েছেন সাবেক জাতিসংঘ মহাসচিব কফি আনান।

po

রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে মিয়ানমার ব্যাপক নির্যাতন চালাচ্ছে বলে য়ে অভিযোগ উঠেছে, সেটি সরেজমিনে তদন্ত করে দেখতে কফি আনানের নেতৃত্বে একটি আন্তর্জাতিক কমিশন শুক্রবার রাখাইন রাজ্যের রাজধানী সিটুয়ে যান।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানাচ্ছে, শুক্রবার সিটুয়ে পৌঁছানোর পর বিমানবন্দরে তাঁদের স্বাগত জানান রাখাইন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু বিমানবন্দরের বাইরে এসময় কোফি আনানের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করছিলেন শখানেক বিক্ষোভকারী।

বিক্ষোভকারীদের হাতের প্ল্যাকার্ডে লেখা ছিল, ‘কফি আনান কমিশন নিষিদ্ধ করো’। তারা ‘আমরা কোফি আনান কমিশন চাই না’ বলে স্লোগানও দেয়।

বিক্ষোভকারীদের একজন বলেন, রাখাইন রাজ্যে যা ঘটছে সেটা আমাদের আভ্যন্তরীন ব্যাপার। এখানে আমরা বিদেশীদের হস্তক্ষেপ চাই না।

মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে এই সর্বশেষ দফা সহিংসতা শুরুর আগে মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সুচি নয় সদস্যের এই আন্তর্জাতিক কমিশন গঠন করেছিলেন। কমিশনে মিয়ানমারের ছয়জন এবং কোফি আনান ছাড়া আরও দুজন বিদেশি প্রতিনিধি আছেন।

রোহিঙ্গাদের মানবাধিকার লংঘন নিয়ে যে তীব্র আন্তর্জাতিক সমালোচনা চলছে, তার পরিপ্রেক্ষিতে আং সান সুচি এই কমিশন গঠনে বাধ্য হয়েছিলেন।

মিয়ানমার সেনার নির্যাতনে ইতিমধ্যে ৮৬ জন নিহতের খবর পাওয়া গেছে। অন্যদিকে ১০ হাজারেরও বেশি লোক বাংলাদেশে পালিয়ে গেছে বলে জানা গেছে। খবর রয়টার্সের।

তবে বেসরকারি হিসাব মতে, রোহিঙ্গাদের ওপর সেনা নির্যাতনে নিহত ও উদ্বাস্তুর সংখ্যা আরও অনেক বেশি।

জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব দেশটির রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর নির্যাতনের বিষয়ে আগেও নিন্দা জানিয়েছেন।

সূত্র- বিবিসি

নিউজটি ভালো লাগলে অবশ্যই শেয়ার করুন

Leave a Reply

x

Check Also

যারা মাথায় ঘোমটা দেয়, টুপি পরে, দাড়ি রাখে তারা আর যাই হোক বাঙালী হতে পারেনা: মিতা হক

যারা মাথায় ঘোমটা দেয়, টুপি পরে, দাড়ি রাখে তারা আর যাই হোক বাঙালী হতে পারেনা: মিতা হক

যেসব নারী ঘোমটা যারা করে, মুখ ও মাথা ঢেকে রাখে এবং যেসব পুরুষ দাড়ি রেখে ...

loading...